ফিচার

এইচএসসি ২০১৩ : হিসাববিজ্ঞান ২য় পত্রের সাজেশন [ঢাকা বোর্ড]

২০১৩ সালের এইচএসসি পরীক্ষার সাজেশন [ঢাকা বোর্ড]
বিষয়: হিসাববিজ্ঞান ২য় পত্র
বিনিময় বিল
*** ১. বিনিময় বিলের প্রত্যাখ্যান কী? কিভাবে বিনিময় বিল প্রত্যাখ্যাত হয়?/কত উপায়ে একখানি বিনিময় বিল প্রত্যাখ্যাত হতে পারে? (চ-১২)
*** ২. কারবারি বিনিময় বিল এবং উপযোগ বিনিময় বিলের মধ্যে পার্থক্য লেখো/বাণিজ্যিক বিল ও অর্থসংস্থানকারী বিলের মধ্যে পার্থক্য লেখো। (কু-১২)
*** ৩. বিনিময় বিলের বিভিন্ন পক্ষগুলো সংক্ষেপে বর্ণনা করো। (য-১২, রা-১২)
*** ৪. চেক ও বিনিময় বিলের পার্থক্য লেখো। (সি-১২)
৫. বিনিময় বিলের স্বীকৃতি কী? বিনিময় বিলের স্বীকৃতির প্রকার ভেদ আলোচনা করো/বিনিময় বিল কত উপায়ে স্বীকৃত হতে পারে তা বর্ণনা করো।
৬. বিনিময় বিলের নবায়ন বলতে কী বোঝ? কিরূপ পরিস্থিতিতে একখানি বিনিময় বিল নবায়ন করা হয়। (দি-১২)
৭. বিনিময় বিলের বৈশিষ্ট্যগুলো লেখো।
অব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানের হিসাব
*** ১. প্রাপ্তি-প্রদান ও আয়-ব্যয় হিসাবের মধ্যস্থিত পার্থক্য আলোচনা করো। (রা-১২, য-১২, সি-১২, ব-১২)
*** ২. প্রাপ্তি-প্রদান হিসাব হতে আয়-ব্যয় হিসাব প্রস্তুত করার নিয়ম লেখো। (কু-১২)
** ৩. মূলধন তহবিল কী? কিভাবে অব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানের মূলধন তহবিল নির্ণয় করা হয়। (চ-১২)
৪. অব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান ও ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানের মধ্যে পার্থক্য লেখো। (ঢ-১২)
৫. অব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানের আয়-ব্যয় উৎসগুলো কী কী?
অংশীদারি কারবারের হিসাব
*** ১. অংশীদারি চুক্তিপত্রের অবর্তমানে প্রযোজ্য আইনের বিধান বা নিয়মাবলি বর্ণনা করো।
*** ২. অংশীদারদের চলতি হিসাব কী? কখন ও কিভাবে তা প্রস্তুত করা হয়/কখন চলতি হিসাব খোলা হয়? (সি-১২, ব-১২)
৩. অংশীদারদের উত্তোলন হিসাব কী? এটি কিভাবে হিসাবভুক্ত করা হয়।
৪. পরিবর্তনশীল মূলধন পদ্ধতি ও স্থির মূলধন পদ্ধতির মধ্যে পার্থক্য লেখো। (কু-১২)
৫. অংশীদারগণের মূলধন হিসাব এবং চলতি হিসাব পৃথক রাখার উদ্দেশ্য বর্ণনা করো। (ঢা-১২)
** ৬. অংশীদারগণের মূলধন হিসাব এবং চলতি হিসাবের মধ্যে পার্থক্য লেখো। (য-১২)
অনাদায়ী পাওনা ও অনাদায়ী পাওনা সঞ্চিতি
*** ১. অনাদায়ী সন্দেহজনক পাওনা সঞ্চিতি রাখার প্রয়োজনীয়তা বা উদ্দেশ্য বা গুরুত্বগুলো আলোচনা কর। (দি-১২)
*** ২. অনাদায়ী পাওনা ও অনাদায়ী পাওনা সঞ্চিতির মধ্যে পার্থক্য লেখো । (রা-১২, য-১২)
* ৩. অনাদায়ী পাওনা ও অনাদায়ী পাওনা সঞ্চিতি কী? এটি কিভাবে হিসাবভুক্ত করা হয়? (ব-১২)
অবচয় হিসাব
*** ১. অবচয় ধার্যের বিভিন্ন পদ্ধতিগুলো সংক্ষিপ্তভাবে বর্ণনা করো।
*** ২. অবচয়ের সংজ্ঞা দাও। স্থায়ী সম্পত্তির অবচয় ঘটে কেন?/অবচয় ধার্যের কারণগুলো বর্ণনা করো। (য-১২, চ-১২)
** ৩. অবচয় কী? অবচয় ধার্য করার উদ্দেশ্য বর্ণনা করো। (ঢা-১২, কু-১২, সি-১২, দি-১২)
৪. অবচয় হিসাবভুক্তকরণ প্রক্রিয়া সংক্ষিপ্ত বর্ণনা করো।
*** কোম্পানি হিসাব (শেয়ার ইস্যু)
*** ১. শেয়ার অধিহার ও শেয়ার অবহার বলতে কী বোঝ? এদের কিভাবে হিসাবভুক্ত করা হয়? (কু-১২, ব-১২)
*** ২. অনাদায়ী তলব ও অগ্রিম তলব কী? কিভাবে এদের হিসাবভুক্ত করা হয়? (য-১২, চ-১২, দি-১২)
*** ৩. শেয়ার ও ঋণপত্রের মধ্যে পার্থক্য লেখো। (রা-১২)
*** ৪. বাজেয়াপ্ত শেয়ার পুনঃ বিলি কী? এটি কিভাবে হিসাবভুক্ত করা হয়?
৫. অগ্রিম তলব কী? কিভাবে এটি হিসাবভুক্ত করা হয়? (য-১২, সি-১২)
৬. শেয়ার বাজেয়াপ্তকরণ কী? এটি কিভাবে হিসাবভুক্ত করা হয়।
উৎপাদন ব্যয় হিসাব
*** ১. উৎপাদন ব্যয় হিসাব ও আর্থিক ব্যয় হিসাবের মধ্যে পার্থক্য নির্ণয় করো। (য-১২, কু-১২, সি-১২)
*** ২. উৎপাদন ব্যয়ের উপাদনগুলো বর্ণনা করো। (ব-১২)
*** ৩. ‘উৎপাদন ব্যয় হিসাববিজ্ঞানের মুখ্য উদ্দেশ্য হচ্ছে উৎপাদন ব্যয় নির্ধারণ ও উৎপাদন ব্যয় নিয়ন্ত্রণ।’_ উক্তিটি ব্যাখ্যা করো।
** ৪. উৎপাদন ব্যয়ের উদ্দেশ্যাবলি বর্ণনা করো। (দি-১২, রা-১২)
** ৫. উৎপাদন ব্যয় বিবরণী কী? এটি কেন প্রস্তুত করা হয়। (ঢা-১২)
৬. উৎপাদন ব্যয়ের উপকারিতা বর্ণনা করো।
বেতন ও মজুরি
*** ১. বেতন ও মজুরি বলতে কী বোঝ? বেতন ও মজুরির উপাদানগুলো কী কী?/বেতন ও মজুরির উপার্জন ও কর্তনগুলো বর্ণনা করো । (ঢা-১২, রা-১২, কু-১২, চ-১২)
২. মোট বেতন ও মুজরির সঙ্গে নিট বেতন ও মজুরির পার্থক্য লেখো।
৩. বেতন ও মজুরি বিবরণীর ছক প্রস্তুত করো।
অনুপাত বিশ্লেষণ
*** ১. অনুপাত বিশ্লেষণ কী? অনুপাত বিশ্লেষণের সীমাবদ্ধতা/অসুবিধা আলোচনা করো। (রা-১২)
২. চলতি অনুপাত ও বিনিয়োজিত মূলধন কী? এটি কিভাবে নির্ণয় করা হয়। (ঢা-১২)
*** ৩. চলতি অনুপাত কাকে বলে? এটি বিশ্লেষণের তাৎপর্য বর্ণনা করো।
*** ৪. তারল্য অনুপাত কী? এটি বিশ্লেষণের তাৎপর্য বর্ণনা কর। (ব-১২, দি-১২)
৫. তারল্য অনুপাত কী? এটি কিভাবে নির্ণয় করা হয়। (য-১২)
৬. অনুপাত বিশ্লেষণের প্রয়োজনীয়তা বর্ণনা করো। (কু-১২, সি-১২,)
টীকা
(১) বিনিময় বিলের অনুমোদন (২) অনুগ্রহ বিল (৩) নোটিং চার্জ /নথিভুক্তকরণ ব্যয় (৪) বিলের বাট্টাকরণ (৫) প্রাথমিক খরচ (৬)অদাবীকৃত লভ্যাংশ (৭) আজীবন সভ্যের চাঁদা (৮) শেয়ার বাজেয়াপ্তকরণ (৯) সম্ভাব্য দায় (১০) উইলকৃত ধনদৌলত (১১) ন্যূনতম পুঁজি (১২) ক্রমহ্রাসমান জের পদ্ধতি।
* স্ব-স্ব বিভাগের (বোর্ডের) ২০১২ সালের প্রশ্ন বাদ দিয়ে অবশিষ্ট প্রশ্নাবলি পড়তে হবে।
সাজেশনটি প্রস্তুত করেছেন: এস এম আহসান হাবিব, শিক্ষক, রোটারী স্কুল অ্যান্ড কলেজ।

Rate this post

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button

You cannot copy content of this page