শিক্ষা বার্তা

ঢাকার সরকারি স্কুলে ভর্তি ফরম বিতরণ শুরু

রাজধানীর ২৪টি সরকারি স্কুলে ভর্তির ফরম বিতরণ আজ (রবিবার) থেকে শুরু হয়েছে। এ ফরম বিতরণ চলবে ৯ ডিসেম্বর পর্যন্ত। এবার ফরমের দাম নির্ধারণ করা হয়েছে ১০০ টাকা। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ১৯, ২০ ও ২১ ডিসেম্বর ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।
মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের (মাউশি) হিসেবে রাজধানীতে ২৪টি সরকারি স্কুল, তিন শতাধিক সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, প্রায় পাঁচ শ মাধ্যমিক বিদ্যালয় এবং তিন শতাধিক ইংরেজি মাধ্যমের স্কুল ও সহস্রাধিক কিন্ডারগার্টেনসহ দুই সহস্রাধিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রয়েছে। এসব স্কুলে প্রতিবছর দুই লক্ষাধিক ছাত্রছাত্রী ভর্তি হয়।
ইতিমধ্যেই সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ভর্তি নীতিমালা চূড়ান্ত করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। এ নীতিমালা অনুযায়ী, এবারো প্রথম শ্রেণীতে লটারির মাধ্যমে শিক্ষার্থী নির্বাচন করতে হবে। প্রথম শ্রেণীতে ভর্তির জন্য শিক্ষার্থীদের বয়স ৫ থেকে ৭ বছর নির্ধারণ করা হয়েছে। স্বচ্ছতা নিশ্চিত করতে ভর্তি কমিটির সদস্যদের উপস্থিতিতে লটারির কার্যক্রম শেষ করতে হবে। এছাড়া লটারির মাধ্যমে নির্বাচিত শিক্ষার্থীদের তালিকা প্রস্তুত করার পাশাপাশি শূন্যপদের সমানসংখ্যক অপেক্ষমান তালিকাও প্রস্তুত রাখতে হবে।
নীতিমালা অনুযায়ী, দ্বিতীয় থেকে অষ্টম শ্রেণীর শূন্য আসনে লিখিত পরীক্ষার মাধ্যমে মেধাক্রম অনুসারে ভর্তির জন্য শিক্ষার্থী বাছাই প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে হবে। নবম শ্রেণীর ক্ষেত্রে জেএসসি বা জেডিসি পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে সংশ্লিষ্ট বোর্ডের প্রস্তুতকৃত মেধাক্রম অনুসারে নিজ বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থী ভর্তির পর অবশিষ্ট শূন্য আসনে অন্যান্য বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ভর্তির জন্য কমিটি কর্তৃক বাছাই করতে হবে। ভর্তি পরীক্ষায় এক শ’ নম্বরের মধ্যে বাংলা, ইংরেজি ও গণিত এই তিন বিষয় থাকবে। এর মধ্যে গণিত ৪০ নম্বরের, বাকি দু’টি ৩০ নম্বর করে।
নীতিমালা অনুসারে, ঢাকা মহানগরীর ভর্তি কমিটিতে মাউশির মহাপরিচালকের সভাপতিত্বে ১৩ সদস্যবিশিষ্ট ভর্তি কমিটি থাকবে। জেলা পর্যায়ে ভর্তি কমিটিতে জেলা প্রশাসককে সভাপতি করে ৯ সদস্যবিশিষ্ট কমিটি থাকবে। উপজেলা পর্যায়ের ভর্তি কমিটিতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে সভাপতি করে ৫ সদস্যবিশিষ্ট কমিটি থাকবে।
এবারো রাজধানীর ২৪টি স্কুলকে ‘ক’ ‘খ’ ও ‘গ’ এই তিন ক্যাটাগরিতে ভাগ করা হয়েছে। তিন গ্রুপের স্কুলের পরীক্ষা হবে ১৯, ২০ ও ২১ ডিসেম্বর। রাজধানীর ২৪টির মধ্যে ১৩টি মাধ্যমিক স্কুলে প্রথম শ্রেণী রয়েছে। এ ১৩টি স্কুলকে তিনটি গ্রুপে ভাগ করা হয়েছে।
‘এ’ গ্রুপ: গভর্নমেন্ট ল্যাবরেটরি হাইস্কুল, তেজগাঁও সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় ও খিলগাঁও সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়।
‘বি’ গ্রুপ: মতিঝিল সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়, নারিন্দা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, বাংলাবাজার সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, শেরেবাংলানগর সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়, সরকারি বিজ্ঞান কলেজ সংযুক্ত হাইস্কুল এবং মোহাম্মদপুর সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়।
‘সি’ গ্রুপ: ধানমন্ডি গভর্নমেন্ট বয়েজ হাইস্কুল, শেরেবাংলানগর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, তেজগাঁও সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও গণভবন সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়।
দ্বিতীয় থেকে নবম শ্রেণীতে ভর্তির জন্য রাজধানীর ২৪টি স্কুল তিনটি গ্রুপে ভাগ করা হয়েছে। প্রতিটি গ্রুপে ৮টি স্কুল রয়েছে।
‘এ’ গ্রুপ: গভ. ল্যাবরেটরি হাইস্কুল, তেজগাঁও সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, মতিঝিল সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, খিলগাঁও সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, নিউ গভর্নমেন্ট গার্লস হাইস্কুল, নবাবপুর সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, ইসলামিয়া সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় ও ধানমণ্ডি কামরুননেসা সরকারি বালিকা বিদ্যালয়।
‘বি’ গ্রুপ: মতিঝিল সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়, নারিন্দা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, সরকারি বিজ্ঞান কলেজ সংযুক্ত হাইস্কুল, গভ. মুসলিম হাইস্কুল, বাংলাবাজার সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয়, শেরেবাংলানগর সরকারি বালক উচ্চবিদ্যালয়, ধানমন্ডি সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয় ও মোহাম্মদপুর সরকারি উচ্চবিদ্যালয়।
‘সি’ গ্রুপ: ধানমন্ডি গভ. বয়েজ হাইস্কুল, আরমানিটোলা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, টিকাটুলী কামরুননেসা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, তেজগাঁও সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয়, ঢাকা কলেজিয়েট স্কুল, শেরেবাংলানগর সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয়, গণভবন সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় ও মিরপুর সরকারি উচ্চবিদ্যালয়।

Rate this post

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button

You cannot copy content of this page