শিক্ষা বার্তা

বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তিতে মেডিকেল টেস্ট করা হবে

বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তিতে মেডিকেল টেস্ট করা হবে। এই মেডিকেল টেস্টে ডোপ টেস্টও অন্তর্ভুক্ত থাকবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। ২৬ জুন ২০২২ তারিখে সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এ তথ্য জানান।

তিনি জানান, বিশ্ববিদ্যালয়ে আইন তৈরি করা হচ্ছে। আইন অনুযায়ী বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে ভর্তিতে শিক্ষার্থীদের ডোপ টেস্ট করা হবে। তাদের ভর্তির সময় মেডিকেল টেস্ট করা হবে, সেই টেস্টের মধ্যেই এই ডোপ টেস্ট থাকবে।

‘মাদকদ্রব্যের অপব্যবহার ও অবৈধ পাচারবিরোধী আন্তর্জাতিক দিবস-২০২২’ উপলক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি আরো বলেন, ‘আমরা পুলিশের ডোপ টেস্ট শুরু করে দিয়েছি। এরপর প্রধানমন্ত্রীর কাছে একটি প্রপোজাল পাঠিয়েছিলাম, সরকারি চাকরিতে কর্মকর্তা-কর্মচারী যারা নিয়োগ পাবেন, তাদেরও ডোপ টেস্ট করা হবে। সিভিল সার্জন যেসব পরীক্ষা করেন, সেখানে ডোপ টেস্টও করবে। এখন সেটাও করা হচ্ছে।’

ডোপ টেস্ট কি?

ডোপ টেস্ট হচ্ছে কোনো ব্যক্তি মাদকাসক্ত কিনা, সেটা যাচাইয়ের মেডিকেল পরীক্ষা। মাদক বা এলকোহলসহ বেশকিছু নেশা জাতীয় দ্রব্য আছে যা গ্রহণ করার পরও এর রেশ শরীরে থেকে যায়। আর এগুলোই ডোপ টেস্টের মাধ্যেমে শনাক্ত করা হয়।

ডোপ টেস্ট যেভাবে করা হয়

সাধারণত মুত্র কিংবা রক্ত (কোনো কোনো ক্ষেত্রে দুটোরই) নমুনা পরীক্ষা করা হয়। ডোপ টেস্টে মাদক গ্রহণ করার শেষ ১ সপ্তাহ মূখের লালার মাধ্যমে, শেষ ২ মাস রক্তের মাধ্যমে, শেষ ১২ মাস বা ১ বছর চুল পরীক্ষার মাধ্যমে মাদক শনাক্ত হবে। এছাড়াও, ডোপ টেস্টে স্প্যাইনাল ফ্লুইড পরীক্ষার মাধ্যমে গত পাঁচ বছরের মধ্যে যদি কেউ মাদক গ্রহণ করে তবে এ পরীক্ষায় ধরা পড়বে। বর্তমানে মূত্র পরীক্ষার মাধ্যমে ডোপ টেস্ট করা হচ্ছে এবং এই পরীক্ষার মাধ্যমে কোনো ব্যক্তি শেষ ১০ দিনে কোনো মাদক গ্রহণ করেছেন কি না তা জনা যাবে।

Rate this post

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button

You cannot copy content of this page